Skip to content

ছাগলের প্রজনন পদ্ধতি, ছাগলের প্রজনন করানো সঠিক নিয়ম কি?

ছাগলের প্রজনন ছাগলের প্রজনন কাল ছাগলের প্রজনন দেখাও ছাগলের প্রজনন করা ছাগলের প্রজনন দেখান ছাগলের প্রজনন পদ্ধতি পাঠা ছাগলের প্রজনন ছাগল প্রজনন

ছাগলের প্রজনন  ছাগলের প্রজনন কাল  ছাগলের প্রজনন দেখাও  ছাগলের প্রজনন করা  ছাগলের প্রজনন দেখান  ছাগলের প্রজনন পদ্ধতি  পাঠা ছাগলের প্রজনন  ছাগল প্রজনন

) ছাগলের প্রজনন এর প্রথম অবস্থায়:

⇒ বাংলার কালো ছাগল একসাথে ২ – ৩টি বাচ্চাদেয়৷

 

⇒ ১০টি স্ত্রী ছাগল ২০-৩০টি বাচ্চা দিতে পারে এক একটি বিয়ানে।

 

⇒ পুরুষ ছাগলকে মাংসের জন্য বড় করতে হবে। আর স্ত্রী ছাগল গুলিকে ছোটবেলায় বেচে নিয়ে তার থেকে সুস্থ, সবল, ভাল চেহারার কয়েকটি ছাগল প্রজননের জন্য রেখে দিতে হয়। তবে স্ত্রী ও পুরুষ ছাগলের বয়স তিন বছর হওয়ার আগেই প্রজননের ছাগল বাছাইকরলে ভাল হয়।

 

 

) পাঠা ছাগল বাছাই:

⇒ এই ছাগলের চেহারা হবে সবল।

 

⇒ সুগঠিত ও স্বাস্থ্যবান।

 

⇒ বেশ শক্তিশালী ও পুরুষালীভাব থাকবে চরিত্রে।

 

⇒ ঘাড়ে কেশর থাকবে এবং প্রজননের সময় খাড়া হবে।

 

⇒ বীর্যে শুক্রাণুর ভাগ খুব বেশী থাকবে।

 

 

) মেয়ে ছাগলে বাছাই:

⇒ বেশ ধীর, স্থির ও শান্ত প্রকৃতির হবেএই ছাগল।

 

⇒ সঠিক সময় গরম হবে।

 

⇒ প্রতি দুই বছরে তিন বার বাচ্চা দেবে।

 

⇒ ১৬ থেকে ১৮ মাসের মধ্যে প্রথম বাচ্চা দেবে।

 

⇒ পা দুটি শক্ত ও সোজা হবে।

 

⇒ পালান অবশ্যই ছাগলের আকারের সহিত মানানসই হবে৷

 

⇒ দুটি বাঁট আলাদা হবে এবং দুটোতেই দুধ আসবে।

 

⇒ পালানের সঙ্গে মানানসই বাঁট থাকবে।

 

⇒ পালানের পাশে দুধ শিরা বেশ স্পষ্ট থাকবে।

 

 

) ছাগলের প্রজনন করানোর সঠিক সময়:

⇒ ১৫ থেকে ১৮ মাস বয়স হলে তবেই স্ত্রী ছাগলকে প্রজননের কাজে ব্যবহার করা যায়।

 

⇒ পুরুষ ছাগলকে ১৮ – ২৪ মাসের মধ্যে ঐ কাজে ব্যবহার করা হয়।

 

 

) কতদিন ছাগলের প্রজনন করানো যায়:

⇒ ৬ বার বাচ্চা দেওয়ার পর আর প্রজননের কাজে স্ত্রী ছাগলকে ব্যবহার করা উচিত নয়।

 

⇒ পুরুষ ছাগলেরক্ষেত্রে ৫ – ৬ বছর পর্যন্ত প্রজননে ব্যবহার করা যায়।

 

 

) বছরের কোন সময় ছাগলের প্রজনন করানো ভাল:

⇒ ছাগলকে সারা বছরেই প্রজনন করানো যায়।

 

⇒ যমুনাপুরী ও বিটল জাতের ছাগলের ক্ষেত্রে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত প্রজননের উপযুক্ত সময়।

 

⇒ পুরুষ ছাগলের ক্ষেত্রে শীত ও বসন্ত প্রজননের আদর্শ সময়।

 

 

) পুরুষ ছাগলের প্রজনন পদ্ধতি:

⇒ দেড় থেকে ২ বছরের পর ছাগলকে নিয়ম মেনে প্রজনন করানো উচিত।

 

⇒ একবারে একটির বেশী ছাগলকে প্রজননে ব্যবহার করা ভাল নয়।

 

⇒ সপ্তাহে একবার প্রজনন করালে ভাল।

 

⇒ বেশী প্রজনন করালে বীর্যের মানও ঘনত্ব কমে যায় এবং ছাগলের স্বাস্থ্যও খারাপ হয়ে যেতে পারে৷

 

 

) মেয়ে ছাগলের প্রজনন পদ্ধতি:

⇒ প্রথমবার ১৫ থেকে১৮ মাসে প্রজনন করানো হয় এবং দ্বিতীয় বার বাচ্চা দুধ ছাড়ার একমাস পরে পুনরায় প্রজননকরানো হয়।

 

⇒ একবার বাচ্চা দেওয়ার তিন মাসের মাথায় পুনরায় প্রজনন করানো যায়।

 

⇒ বাচ্চা দিতে এরা সময় নেয় প্রায় ১৪৫ – ১৫২ দিন, গড়ে ৫ মাস।

 

⇒ একবার বাচ্চা দেওয়ার (৩ মাস + ৫ মাস) ৮মাসের মাথায় আর একবার বাচ্চা পাওয়া যায়।

 

⇒ স্ত্রী ছাগল ১৮ থেকে ২১ দিন অন্তর গড়ে ১৯ দিন অন্তর গরম হয় এবং ২৪ থেকে ৪৮ ঘন্টা গরম থাকে।

 

⇒ গরম শুরু হওয়ার ১০ থেকে ১২ ঘন্টা পরে প্রজনন করানো ভাল এবং প্রয়োজন হলে দ্বিতীয় বারপ্র জনন করা যায় প্রথমবারের ১০ ঘন্টা পরে।

 

⇒ ছাগল ১৯ দিন পরপর গরম হয়।

 

 

) ছাগল হিটে আসার লক্ষণ:

⇒ অস্থিরতা প্রকাশ।

 

⇒ অন্য ছাগলকে বিরক্ত করা।

 

⇒ অন্য ছাগলের ঘাড়ে উঠবার চেষ্টাকরা।

 

⇒ দুপাশে লেজ নাড়া ঘনঘন।

 

⇒ হঠাত খাওয়া দাওয়া কমিয়ে দেওয়া।

 

⇒ দুধেল ছাগলের দুধ হঠাত কমে যাওয়া।

 

⇒ যোনিদ্বার লাল ও ফোলাফোলাভাব থাকে।

 

⇒ যোনিদ্বার দিয়ে তেলের মত স্বচ্ছ পদার্থ বের হয়।

 

⇒ ঘন ঘন প্রসাব হয়।

 

 

১০) ছাগলের প্রজনন করানো:

⇒ পুরুষ ছাগলকে দিয়ে স্বাভাবিকভাবে স্ত্রী ছাগলের প্রজনন করানো হয়। এইভাবে ১৮ – ২১ দিনের মধ্যে স্ত্রী ছাগলটি যদি আর গরম না হয় তবে বুঝতে হবে ছাগলটি গর্ভবতী হয়েছে এবং ৫মাস বাদে বাচ্চা প্রসব করবে।

 

⇒ কিন্তু যদি পুনরায় গরম হয়, সেক্ষেত্রে অনেক সময় ‘রিপিট ব্রিডিং’ এর জন্য ছাগলটি গর্ভবতী হয় না। তখন ১টি বা ২টি গরম কাল ছেড়ে দিয়ে বা অন্য পুরুষ ছাগল দিয়ে প্রজনন করালে বা প্রজনন অঙ্গের চিকিৎসা করালে বা পুষ্টিকর ভিটামিন ‘এ’ যুক্ত সুষম খাবার খেতে দিলে সুফল পাওয়া যায়।

 

 

১১) ছাগলের প্রজনন ঘটিত বৈশিষ্ট্য সমূহ:

⇒ পূর্ণতা প্রাপ্তির বয়স ৪ – ৮ মাস।

 

⇒ স্ত্রী ছাগলের প্রজননের সময় ১৫ – ১৮ মাস।

 

⇒ ঐ সময় স্ত্রী ছাগলের ওজন ১০ – ৩০ কেজি।

 

⇒ পুরুষ ছাগলের প্রজননের সময় ১৮ – ২৪ মাস।

 

⇒ প্রজননে পুরুষ ছাগল পিছু স্ত্রীছাগলের সংখ্যা ১০ – ৪০ টি।

 

⇒ গরম হয় কতদিন অন্তর ১৮ – ২১ দিন।

 

⇒ গরম থাকার সময় ২৪ – ৪৮ ঘন্টা।

 

⇒ গরম হওয়ার পর প্রজননের সময় ১০ – ১২ ঘন্টা।

 

⇒ কতবার প্রজনন করানো দরকার? ১ বার, কিছুক্ষেত্রে ২ বার।

 

⇒ বাচ্চা হতে সময় লাগে ১৪৫ – ১৫২ দিন।

 

⇒ বাচ্চা হবার পর পুনরায়গরম হতে সময় ৩ মাস।

 

⇒ মায়ের কাছ থেকে বাচ্চাসরিয়ে নেওয়া হয় ২ মাস।

 

⇒ একসাথে বাচ্চা দেয় ২ – ৩ টি।

 

⇒ খাসীকরণ করার বয়স ২ মাস।

 

⇒ মাংস বাজার করার সময় ৬ – ১২ মাস।

 

⇒ বাজারজাত করার সময় ছাগলের ওজন ৮ – ১২ কেজি।

 

⇒ জন্মের সময় ওজন ১ – ৩.৫ কেজি।

 

⇒  দৈনিক দুধ উৎপাদন .৮ – ২ কেজি।

 

⇒ প্রজননের কাল বা সময় আগস্ট-নভেম্বর।

এই পোষ্টটি কেমন লেগেছে?

রেটিং দিতে স্টার এ ক্লিক করুন!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.

We are sorry that this post was not useful for you!

Let us improve this post!

Tell us how we can improve this post?

(চাইলে পোষ্টটি শেয়ার করতে পারেন)

Leave a Reply

Your email address will not be published.