Skip to content

ছাগলের প্রসব এর সময় বাচ্চা ভিতরে ফেঁসে গেলে কিভাবে ডেলিভারি করাবেন? ছাগলের গর্ভপাত ছাগলের খামার ছাগল পালন পদ্ধতি

ছাগলের প্রসব ছাগলের গর্ভপাত ছাগলের গর্ভকালীন সময় ছাগলের প্রসবের লক্ষণ ছাগল পালন ছাগলের খামার ছাগল পালন পদ্ধতি

ছাগলের প্রসব বা ছাগলের গর্ভপাত এর সময় ছাগলের বাচ্চা পেটের ভিতর আটকে যায়, নরমাল ডেলিভারি না হয়, সেটাকে আমরা কিভাবে ডেলিভারি করাব? লেখাটি টি স্কিপ করে শেষ মুহূর্তটুকু অবশ্যই মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

ছাগলের প্রসব ছাগলের গর্ভপাত ছাগলের গর্ভকালীন সময় ছাগলের প্রসবের লক্ষণ ছাগল পালন ছাগলের খামার ছাগল পালন পদ্ধতি

■ নরমাল পজিশন বলতে কি বোঝায়?একটি বাচ্চা সাধারনত তার মায়ের যে ব্লাডার থাকে সে ব্লাডারের ভেতরে থাকে, তার মাথা এবং সামনের পা সেটা থাকে ভ্যাজাইনার দিকে এবং সে ব্লাডারের সঙ্গে সংযুক্ত থাকে মায়ের যে ইউট্রাস থাকে সেই ইউট্রাসেস সংঙ্গে। এইটাই হচ্ছে তার নর্মাল পসিশন। 

 

■ কিন্তু যদি কোনো কারণবশত ফিমেল ছাগলের পেটে যদি আঘাত লাগে বা অতিরিক্ত পরিশ্রমের ফলে এবং শরীরে বিভিন্ন ধরনের ডেফিসিয়েন্সি কারণে কিন্তু এই প্রবলেমটি দেখা যায়। এছাড়াও পেটে বাচ্চা হওয়ার কারণ সেটা হচ্ছে ছোট কোন ফিমেলকে যদি আমরা অন্য কোন উন্নত জাতের বড় মেইল দিয়ে ব্রিডিং করাই, তার কারণে পেটের ভিতর বাচ্চা বড় হয়ে যায়, ওভার সাইজ হয়ে যাওয়ার কারণে কিন্তু বাচ্চাটা ফেঁসে যায়।

 

■ কি করে বুঝবেন যে পেটের ভিতর বাচ্চা ফেঁসে  গেছে? দেখুন নরমালি একটা ফিমেল ছাগল যখন পেইন উঠবে তখন সেটা প্রায় কুড়ি মিনিট বা আধ ঘণ্টার মধ্যে কিন্তু বাচ্চাটির প্রসব করে। কিন্তু আমরা যদি দেখতে পাই পেইন উঠেছে বা পিছন দিকে প্রথমে ব্লাডার বেরই, ব্লাডার বের হবার পরেও দেখা যাচ্ছে আধঘন্টা পরেও তার বাচ্চা হচ্ছে না এবং বাচ্চার সামনের পা মাথা কিছুই দেখাচ্ছেনা সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনাকে হাত লাগাতে হবে।

 

■ প্রথমেই  ব্লাডার বের হবে আপনি প্রথমেই কিন্তু এই ব্লাডারকে ফাটাবেন না। কেননা ঐ ব্লাডার যতক্ষণ ঠিকঠাক থাকবে, ব্লাডারের ভেতর যতক্ষন জল থাকবে ও বাচ্চা থাকবে ততক্ষণ কিন্তু সেই বাচ্চাটি সহজে অক্সিজেন নিতে পারবে।

 

■ তারপর বাচ্চাকে নরমাল পজিশনে আনতে হবে। সামনের পা দেখা গেলে বাচ্চার মাথাকে পজিশনে নিয়ে আসবেন। পজিশনে নিয়ে এসে কিন্তু বাচ্চাটাকে টেনে বার করবেন। তো খুব আস্তে করে টানবেন বেশি শক্তি দেবেন না। কেননা সে সময় তার হাত-পা থাকে খুবই নরম যার ফলে সে তার হাড়ে ব্যথা লাগতে পারে, তাতে সবসময় গ্লাভস পর এই কাজটা করবেন এবং পারলে গ্লাভস এর মধ্যে বেটাডাইন লাগিয়ে নেবেন।

 

■ ডেলিভারির সময় জিনিসগুলি সঙ্গে রাখবেন প্রথম হচ্ছে জন, টোডাইন, সুতির কাপড়, সঙ্গে রাখবেন চটের বস্তা এবং ছাগলকে ডেলিভারি করানোর সময় কোন বালি বা মাটির উপর করাবেন না, কোন শুকনো খড় বা চটের বস্তার উপর করাবেন।

 

■ এরপরে বাচ্চাটিকে ডেলিভারি করানোর পর বাচ্চাদের নাভি থাকবে সেটা 4 ইঞ্চি রেখে কেটে ফেলবেন এবং সেখানে সঙ্গে সঙ্গে বেটাডাইন লাগিয়ে দেবেন। দ্বিতীয় বাচ্চাটাও হাত ভিতরে ঢুকিয়ে সেটাকে পজিশনে নিয়ে এসে বা সামনের পা দুটো বাইরে নিয়ে এসে সেটাকে ডেলিভারি করাতে হবে। 

 

■ বাচ্চাটাকে বার করার সঙ্গে সঙ্গেই তার মুখ নাক পরিষ্কার করে দিবেন। কেননা অক্সিজেন টা যেন সে ফিরে পায়, যেন তার নাকে মুখে ফুঁ দিবেন এবং কটন কাপড় দিয়ে পরিষ্কার ভাবে বাচ্চাটিকে মুছে রোদে এগিয়ে নিয়ে যাবেন। যদি রাত্রের বেলা বাচ্চা হয় সবসময় মনে রাখবেন আগুন লাগিয়ে তাকে হিট দেওয়া কিন্তু দরকার। বাচ্চা অনেকক্ষণ কষ্ট হওয়ার কারণে কিন্তু তার শ্বাসকষ্ট হবে। কেননা প্রথম যে বাচ্চা সেই বাচ্চাটা আটকে যায় এবং দ্বিতীয় বাচ্চাটা ভিতর কষ্ট পায়।

 

■ আর একটি কথা মনে রাখবেন বাচ্চা ডেলিভারির পর মায়ের যখন ফুল বা প্লাসেন্টা যদি পড়ে যায় পর কিন্তু মায়ের যে যোনীতে টোডাইন পারলে ভিতরে ঢুকিয়ে দেবে। যোনিতে যদি হাত ঢোকানো হয়, তবে সে করাটা উচিত। কেননা ভিতরে যদি কোন অসুবিধা থাকে, কোন ময়লঅ থাকে, পয়জন থাকে তা কেটে যাবে।

 

■ এরপরে আধঘণ্টার মধ্যে কিন্তু বাচ্চাকে মায়ের কোলেস্ট্রং খাওয়ানোর জরুরি। কেননা মায়ের কোলেস্ট্রং না খাওয়ালে বাচ্চা অতিরিক্ত গলা শুকিয়ে হয়তো বাচ্চা টি মারা যেতে পারে। যার জন্য খুব তাড়াতাড়ি বাচ্চাগুলোকে মায়ের কোলেস্ট্রং খাওয়াবেন।

 

■ প্রথমে দুধের বাট  সেটা পরিষ্কার করে মুছে দেবেন, পারলে গরম জল দিয়ে, সেখানে বেটাডাইন দিয়ে দুধের বাটগুলি পরিষ্কার করে দেয়া উচিত। কেননা মায়ের বাচ্চা দেওয়ার সময় তার যোনি দিয়ে যে নোংরা গুলো বেরিয়ে আছে, সেটা ওলানে লেগে থাকতে পারে এবং সেটা খাওয়ার পরে বাচ্চাদের কঠিন ধরনের রোগ হতে পারে।

 

যদি পোষ্টটি ভাল লেগে থাকে অবশ্যই একটা আমাদের ফেসবুক পেইজে একটা লাইক করতে ভুলবেন না। আপনাদের একটা লাইক আমাদের পরবর্তী ভিডিও বানানোর জন্য উৎসাহিত করে তুলবে এবং পোষ্টটি বেশি বেশি শেয়ার করে দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দেবেন। ধন্যবাদ। মূল আলোচনাটি সংগ্রহিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *