Skip to content

ছাগলের ১০টি রোগের লক্ষণ জেনে রাখুন: ছাগলের রোগ সমূহ? ছাগলের কি কি অসুখ হয়?

ছাগলের রোগ প্রতিরোধ ছাগলের রোগ ও চিকিৎসা pdf ছাগলের রোগের চিকিৎসা ছাগলের রোগের লক্ষণ ছাগলের রোগ কয় ধরনের ছাগলের রোগের ওষুধ ছাগলের রোগ প্রতিকার
খামারিয়ান লাইভস্টক ফার্ম


ছাগলের রোগের লক্ষণ সহ 
কয়েকটি সাধারণ ব্যাকটিরিয়াল ছাগলের রোগ সম্পর্কে প্রাথমিক তথ্য নীচে বর্ণনা করা হল। 

ছাগলের রোগ প্রতিরোধ  ছাগলের রোগ ও চিকিৎসা pdf  ছাগলের রোগের চিকিৎসা  ছাগলের রোগের লক্ষণ  ছাগলের রোগ কয় ধরনের  ছাগলের রোগের ওষুধ  ছাগলের রোগ প্রতিকার

(১) অ্যানথ্রাক্স
 
 
লক্ষণঃ

অ্যানথ্রাক্স ছাগলের একটি মারাত্মক ছাগলের রোগ। এটি হঠাৎ মৃত্যুর কারণ হতে পারে। নাক এবং অন্যান্য স্থান থেকে রক্ত ​​প্রবাহিত হওয়াও সাধারণ।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ

পশুর রোগটি আরও ছড়িয়ে পড়া বন্ধ করার জন্য অ্যানথ্রাক্স আক্রান্ত ছাগলের মৃতদেহ সমাহিত করা উচিত। এই রোগ প্রতিরোধের জন্য সময় মতো আপনার ছাগলকে টিকা দিন।

 

(২) ব্রুসেলোসিস
লক্ষণঃ

ব্রুসেলোসিস রোগ দ্বারা বন্ধ্যাত্বের সমস্যা হয়। দেরীতে গর্ভাবস্থায় গর্ভপাতও এই রোগের কারণে ঘটে।জয়েন্ট ফোলা এই রোগের আর একটি সাধারণ লক্ষণ।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ

এই রোগ প্রতিরোধের জন্য আপনাকে মৃত ভ্রূণ এবং প্ল্যাসেন্টা নিষ্পত্তি করতে হবে। নিষ্পত্তি করার সময় হাতের গ্লাভস ব্যবহার করুন।

 

(৩) এন্টারোটোক্সেমিয়া
লক্ষণঃ

এন্টারোটোকসেমিয়া একটি মারাত্মক ছাগলের রোগ, বিশেষত বাচ্চাদের জন্য। অল্প বয়স্ক ছাগল বাচ্চাদের হঠাৎ মৃত্যু এই রোগের সাধারণ লক্ষণ।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ

ছোট বাচ্চাদের শাকসব্জী খাওয়ানো এবং তাদের বাইরে মাঠে চরানো এ রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করবে। বর্ষা শুরু করার ঠিক আগে বাচ্চাদের টিকা দিন।

 

(৪) পা পচা রোগ
লক্ষণঃ

পা পচা কোনও মারাত্মক ছাগলের রোগ নয়, তবে এটি ছাগলকে কিছুটা সমস্যা তৈরি করতে পারে। ছাগলের পায়ে ক্ষত হওয়া এই রোগের সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণ।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ

আপনার ছাগলের জন্য পরিষ্কার এবং শুকনো আবাসন এর বিষয়টি নিশ্চিত করুন।

 

(৫) রক্তক্ষরণ সেপটিসেমিয়া
লক্ষণঃ

হেমোর্র্যাজিক সেপটিসেমিয়া একটি মারাত্মক ছাগলের রোগ। এটি ছাগলগুলিতে হঠাৎ মৃত্যুর কারণ হতে পারে। অন্ত্রের প্রদাহ এবং উচ্চ জ্বর এই ছাগলের রোগের সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণ। এই রোগটি বর্ষাকালে ছাগলকে বেশি প্রভাবিত করে।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ

এই রোগ প্রতিরোধের জন্য সময় মতো আপনার ছাগলকে টিকা দিন। বর্ষার ঠিক আগে আপনার ছাগলকে টিকা দেওয়া উচিত।

 

(৬) ম্যাসাটাইটিস
লক্ষণঃ

মাস্টাইটিস ছাগল রোগের সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণ হ’ল উদর ফোলা। দুধের রঙ পরিবর্তনও এই রোগের লক্ষণ।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ

আপনার ছাগলের ঘর যথাসম্ভব পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করুন।

 

(৭) নিউমোনিয়া
লক্ষণঃ

উচ্চ জ্বর এবং ঘন ঘন কাশি নিউমোনিয়া রোগের সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণ।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ

সর্বদা আপনার ছাগল ঘর পরিষ্কার করার চেষ্টা করুন। যথাযথ বায়ুচলাচল ব্যবস্থা নিশ্চিত করুন এবং আপনার ছাগলকে সর্বদা পান করার জন্য তাজা এবং পরিষ্কার জল সরবরাহ করুন।

ছাগল পক্স, পিপিআর এবং পা ও মুখের রোগগুলি সবচেয়ে সাধারণ ভাইরাল ছাগলের রোগ।

 

(৮) পা এবং মুখের খুরা রোগ
লক্ষণঃ

এফএমডিকে পা ও মুখের রোগও বলা হয় ছাগলগুলির একটি ভাইরাল রোগ। উচ্চ জ্বর, পা ও মুখে ক্ষত, হাঁটাচলাতে অসুবিধা এবং লালা নিঃসরণ বৃদ্ধি এই রোগের সাধারণ লক্ষণ।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ
এই রোগ প্রতিরোধের জন্য সময় মতো আপনার ছাগলকে টিকা দিন। প্রথম টিকাটি 3 মাস বয়সের মধ্যে এবং পরে 5-6 মাস অন্তর একবার করা উচিত।
 
 
(৯) গোট পক্স বা বসন্ত
লক্ষণঃ

শ্বাসকষ্ট, অনুনাসিক মিউকাস স্রাব এবং জ্বর ছাগল পক্স রোগের সর্বাধিক সাধারণ লক্ষণ। এই রোগের অন্যান্য দৃশ্যমান লক্ষণগুলি হ’ল আক্রান্ত ছাগলগুলির ঠোঁট, উরুর উপর বসন্ত দেখা যায়।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ

নিয়মিত আপনার ছাগলকে টিকা দিন। সাধারণত ছাগল পক্সের ভ্যাকসিন বছরে একবার প্রয়োগ করা হয়।

 

(১০) পিপিআর
লক্ষণঃ

পিপিআর ছাগলের একটি সাধারণ ভাইরাল রোগ। অনুনাসিক মিউকাস স্রাব, মুখের ক্ষত, শ্বাসকষ্ট এবং জ্বর এই রোগের সাধারণ লক্ষণ।

প্রতিরোধ / চিকিৎসাঃ

আক্রান্ত ছাগলকে পাল থেকে আলাদা করুন। সময় মতো আপনার ছাগলকে টিকা দিন। পিপিআর ভ্যাকসিনটি সাধারণত বছরে একবার প্রয়োগ করা হয়।

 

পরজীবী আক্রমণ

পরজীবীরা ছাগলের কিছু রোগ বা স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্যা সৃষ্টি করে। বাহ্যিক এবং অভ্যন্তরীণ উভয় পরজীবী ছাগলের জন্য ক্ষতিকারক। যতটা সম্ভব ঘর পরিষ্কার রাখুন এবং বাহ্যিক পরজীবী প্রতিরোধের জন্য নিয়মিত ডি-ওয়ার্মিং করুন যা পরজীবী প্রতিরোধে সহায়তা করবে।

এগুলি ছাগলের সাধারণ রোগ এবং তাদের চিকিৎসা। আপনার ছাগলের স্বাস্থ্য এবং তাদের ক্রিয়াকলাপ সর্বদা নিরীক্ষণ করুন। এটি কেবল সমস্যাগুলি সনাক্ত করতে সহায়তা করবে না, এটি আপনার অর্থ এবং সময় সাশ্রয় করতে সহায়তা করবে।

পরবর্তী পোষ্ট পড়ার আমন্ত্রণ রইল! ধন্যবাদ সাথে থাকার জন্য।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *